আ’লা হযরতের পঙক্তিমালা -কাব্যানুবাদ: হাফেজ মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান

আ’লা হযরতের পঙক্তিমালা -কাব্যানুবাদ: হাফেজ মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান

আ’লা হযরতের পঙক্তিমালা -কাব্যানুবাদ: হাফেজ মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান

আ’লা হযরতের পঙক্তিমালা -কাব্যানুবাদ: হাফেজ মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান

جبكه پيد شه انس وجاں هوگيا
دور كعبه سےلوث بتاں هوگيا
উচ্চারন: জবকেহ্ প্যয়দা শাহে ইন্স ও জাঁ হো গ্যায়া,
দূর কা’বা সে লওসে বুতাঁ হো গ্যায়া।
সরল অনুবাদ: যখন জ্বিন-ইনসানের রাজাধিরাজ হযরত (সাল্লাল্লাহু তা‘আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম)-এ ধরাধামে আবির্ভূত হলেন, কা’বার অভ্যন্তর হতে মূর্তির নাপাকী দূরীভূত হল।
কাব্যানুবাদঃ জিন-ইনসানের শাহানশাহের যেই শুভাগমন
কা’বা হতে মূর্তি নাপাক হয় অপসারন।
دل مكان شه عرشياں هوگيا
لا مكاں لامكاں لا مكاں هوگيا
উচ্চারন: দিল মকানে শাহে আরশিয়াঁ হো গ্যয়া
লা-মকাঁ, লা-মকাঁ, লা-মকাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: যে অন্তর আরশলোকের স¤্রাট’র আসন হয়ে যায়, সন্দেহ নেই, সে অন্তর লা-মকান হয়ে যায়, তা লা-মকানই হয়ে যায়। অবশ্যই তা লা-মকানই হয়ে যায়। [কারণ আাঁ হযরত (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) হলেন ‘মকীনে লা-মকান’ অর্থাৎ লা-মকানের অতিথি] কাব্যানুবাদ: আরশ-কুল স¤্রাটের আসন, হয়ে যায় যাঁর অন্তকরণ,
সেই আসনই লা-মকাঁ, লা-মকাঁ বিলক্ষণ।
سرفداۓره جان جاں هوگيا
امتحاں‏ امتحاں امتحاں هوگيا
উচ্চারন: সর ফেদায়ে রাহে জানে জাঁ হো গ্যায়া
ইমতিহাঁ, ইমতিহাঁ, ইমতিহাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: যে মাথা কুল-মাখলুকাতের জানের জান আল্লাহর হাবীব’র পথে উৎসর্গিত, অর্থাৎ যে তাঁর জন্য নিবেদিত হতে পারে, তাঁর পরীক্ষা হয়ে গেছে, তিনি পরীক্ষিত। পরীক্ষায় কামিয়াব।
কাব্যানুবাদ: লুটায় রাঙা পায়ে যে শির, জানের জান সেই নবীজির পরীক্ষায় কামিয়াব সে যে, পরীক্ষিত প্রিয়জন।
ان كے جلوے كا جم دل بياں هوگيا
گلستاں مجمع بلبلاں هوگيا
উচ্চারন: উনকে জলওয়ে কা জম দিল বয়াঁ হো গ্যয়া
গুলিস্তাঁ মজমায়ে বুলবুলাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: যে অন্তর ঝিনুকের ন্যায় তাঁর নূরের ছটা বিচ্ছুরণকারী হতে পেরেছে, তবে ওই অন্তর বাগানের মত বুলবুলিদের মিলনস্থলে পরিণত হয়েছে।
কাব্যানুবাদ:
তাঁর সে নূরের আভায় যে দিল, ঝিনুক শুভ্ররূপেই ঝিলমিল,
বুলবুলিদের মিলন মেলা হয় যে তা স্বর্গ-কানন।
تھابراق نبى ياكه نور نظر
يه گياوه گياوه نهاں هوگيا
উচ্চারন: থা বুরাকে নবী ইয়া কেহ্ নূরে নযর
ইয়ে গ্যয়া, উঅহ্ গ্যয়া উঅহ্ নিহাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: মে’রাজের রাতে নবীজির বুরাক, দৃষ্টির জ্যোতির মত এতই দ্রুতগামী ছিল, চোখের পলকেই তা এখানে ওখানে এমনকি মুহূর্তেই অদৃশ্য হয়ে গেল।
কাব্যানুবাদ: নবীর বুরাক ক্ষিপ্রগতি, দৃষ্টিবাণের অমনি জ্যোতি,
এক পলকেই দৃশ্যের আড়াল এমনি সে দ্রুত গমন
حق شفاعت سے تيري گنھگاروں پر
مهرباں هوگيا مهرباں هوگيا
উচ্চারন: হক্ব শাফাআত সে তেরী গুনাহ্গারোঁ পর
ম্যহর বাঁ হো গ্যয়া, ম্যহর বাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: আল্লাহ্ তা‘আলা আপনারই সুপারিশে পাপী-তাপীদের প্রতি সদয়, সহানুভূতিশীল হয়ে গেছেন।
কাব্যানুবাদ: তোমার সুপারিশে সব পাপীদের ও চান সে রব,
আল্লাহ্ তা‘আলা তাদের প্রতিই মেহেরবান ও সদয় হন
گلشن طيبه ميں طائر سدروه كا
آشياں آشياں آشياں هوگيا
উচ্চারন: গুলশানে ত্যয়বা মে ত্বা-য়ের সিদরা কা
আ-শিয়াঁ, আ-শিয়াঁ, আ-শিয়াঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: সিদরাতুল মুন্তাহায় উড্ডয়নকারী পাখি অর্থাৎ জিবরাঈল (আলাইহিস্ সালাম)’র জন্য মদীনায়ে ত্বায়্যিবা অবস্থানস্থলে পরিণত হয়েছে।
কাব্যানুবাদ: যেই পাখি উড়ছে হায়, সিদরাতুল মুন্তাহায়
তার তরে যে এই মদীনায় যায় হয়ে নীড়ের মতন।
يانبي لوخبر آتش سے ميں
تفته جاں تفته جاں تفته جاں هوگيا
উচ্চারন: ইয়ানবী লো খবর আ-তিশে গম সে ম্যায়ঁ
তাফতাহ্, জাঁ, তাফতাহ্ জাঁ, তাফতাহ্ জাঁ হো গ্যয়া
সরল অনুবাদ: হে প্রিয় নবী, আমার খবর নিন, আমি দুঃখ-ব্যথার আগুনে ভষ্ম হৃদয়, অঙ্গারপ্রাণ হয়ে গেছি।
কাব্যানুবাদ: হে নবী, লও খবর, বিরহে পোড়ে অন্তর,
জ্বলছে এ প্রাণ, ভষ্ম হৃদয়, নিঃশেষে অঙ্গার এখন।
گزرے جس كوچے سے شاه گردوں جناب
آسماں آسماں آسماں هوگيا
উচ্চারন: গুযরে জিস্ কো-চে সে শা-হে গিরদোঁ জনাব
আসমাঁ, আসমাঁ, আসমাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: আসমানী জগতের বাদশাহ্ যে রাস্তা দিয়ে গমন করেন, ওই পথ আসমান, আসমান অর্থাৎ আকাশের মত) উচ্চ মর্যাদা-সম্পন্ন হয়ে যায়।
কাব্যানুবাদ: যান চলে যেই রাহে, ঊর্ধ্বলোকের সেই শাহে,
সেই আকাশ, সেই আকাশ যা ছুঁয়ে যায় সেই চরণ।
كس كے روئے منوّر كي يادآگئي
دل تپاں دل تپاں دل تپاں هوگيا
উচ্চারন: কিস কে রো-য়ে মুনাওওয়ার কী ইয়াদ আ-গ্যয়ী,
দিল তপাঁ, দিল তপাঁ, দিল তপাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: কার সে দ্বীপ্তিময় নূরানী চেহারা মনে পড়ে গেল! মন উতলা, চিত্ত ব্যাকুল, হৃদয় উচাটন হয়ে গেল।
কাব্যানুবাদ: কার সে মুখ দীপ্তিময়, মানসপটে হয় উদয়,
ব্যাকুল প্রাণ, ব্যাকুল প্রাণ, অশান্ত আর উচাটন।
طوطى سدره وصف رخ پاك ميں
گلفشاں گلفشاں گلفشاں هوگىا
উচ্চারন: ত্বো-ত্বী সিদরাহ্ ওয়াসফে রোখে পাক মে,
গুলফশাঁ, গুলফশাঁ, গুলফশাঁ, হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: সিদরার গানের পাখি (অর্থাৎ জিব্রাইল) তাঁর পবিত্র চেহারার মহিমা বর্ণনায় অহরহ যেন পুষ্প রেণু ছিটাচ্ছে। (অর্থাৎ প্রশংসার ফুলঝুরি ছড়াচ্ছে।)
কাব্যানুবাদ: বুলবুল ওই সিদরার, পুষ্পিত মুখ গায় এন্তার
সুনাম যশের ফুল ছিটায় পুষ্প ছুঁড়ে অগনন।
طوطى اصفاুں سن كلام رضا
بے زباں ے زباں ے زباں هو‏گيا
উচ্চারন: ত্বো-ত্বিয়ে ইসফাহাঁ সুন কালামে রেযা
বে-যোবাঁ, যে যোবাঁ, যে যোবাঁ হো গ্যয়া।
সরল অনুবাদ: ইস্পাহানের ত্বো-ত্বী বা গানের পাখি, রেযার রাসূল প্রশন্তির বাণীগুলো শুনে নাও। শোনার পর যা হবে) সে ভাষাহীন, নির্বাক, যেন বোবা হয়ে গেল।
কাব্যানুবাদ: ইস্পাহানের হে পাখি, রেযার সে না’ত শুনবি কি? এই শুনে সে নিরুত্তর, নেই ভাষা, আর নেই বচন।