Welcome To Anjuman-E- Rahmania Ahmadia Sunnia Trust | www.anjumantrust.org Blog

         প্রশ্ন: বর্ণিত আসহাবে কাহাফের ঘটনা থেকে শিক্ষণীয় বিষয় কি কি আছে? জানালে উপকৃত হব।   0

         প্রশ্ন: বর্ণিত আসহাবে কাহাফের ঘটনা থেকে শিক্ষণীয় বিষয় কি কি আছে? জানালে উপকৃত হব।  

         খায়রুন নিসা রোজী             পটিয়া, চট্টগ্রাম।}}}}}}}}}}    উত্তর: পুরো ক্বোরআন করিম মানব জাতির জন্য হেদায়ত ও সকল সমস্যার সমাধান হিসেবে মহান রাব্বুল আলামীন অবতীর্ণ করেছেন। এর প্রতিটি হরফ ও সুরাতে প্রকাশিত হয় মহান...

Jamadius Sani 0

২. দ্বিতীয় প্রশ্ন: আমাদের আবাসিক এলাকার পাঁচতলা বিশিষ্ট মসজিদে যার নিচতলায় সতিমির আবাসিক সমিতির অফিস। মসজিদে ঢুকার পথ ও সমিতির অফিস পাশাপাশি। মসজিদে ঢুকার পথে ও অফিসের দরজা এবং দেওয়ালের সাথে লাগানো, দুই তিনটি কাতার রয়েছে। যেখানে জামাত শেষে মানুষ নামায পড়ে। ক. সমিতির অফিসের মধ্যে প্রায় সময় নারী পুরুষ এক সাথে সভা, বৈঠক ও চা নাস্তা করে। যে নারীরা শরীয়তের পোশাক পরে না এবং পর্দা করে না। খ. সমিতির কিছু পুরুষ সদস্য নামাযের সময় হলে নামায না পড়ে লাইট বন্ধ করে অফিসের মধ্যে বসে থাকে। অথবা দু এক মিনিট আগে মসজি থেকে বের হয়ে যায়। গ. সমিতির কিছু সদস্য অফিস থেকে চেয়ার বের করে মসজিদের দরজার পার্শ্ব বসে সিগারেট খায় ও আড্ডা দেয়। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, মসজিদের কম্পাউণ্ডে বসে বেপর্দা নারীদেরকে নিয়ে বসে সভা করা, নামায না পড়ে অফিসে বসে থাকা, বা বের হয়ে যাওয়া, ধুমপান করা ও আড্ডা দেওয়া, শরীয়তের দৃষ্টিতে বৈধ হচ্ছে কিনা?

উত্তর: ২. মসজিদের জন্য নির্ধারিত চৌহদ্দির ভিতরে নিচতলায় সমিতির অফিস বানানো সেখানে নারী-পুরুষের এক সাথে মিটিং/বৈঠক করা, চা-নাস্তা করা, বেপর্দা মহিলারা আসা-যাওয়া করা, নামায ও জমাতের সময় লাইট বন্ধ করে সেখানে বসে থাকা অথবা...

Jamadius Sani 0

প্রশ্ন: ১. আমাদের আবাসিক এলাকায় আবাসিক সরকারী রাস্তার শেষ প্রান্তে রাস্তার উপর ও নালার পাশে একটি বেড়ার টিন শেড মসজিদ নির্মাণ করা হয়। এ মসজিদে প্রায় এক বছর যাবৎ জুমার নামাযসহ পাঁচ ওয়াক্ত নামায নিয়মিতভাবে আদায় করার পর পরবর্তীতে মসজিদের এ জায়গায় সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থা সিডিএ-এর কাছ থেকে মসজিদ করার অনুমতি নিয়ে পাঁচতলা বিশিষ্ট জামে মসজিদ নির্মাণ করা হয়। দুই তলায় মেহরাব ও মিম্বার করে দুইতলা থেকে পাঁচতলা পর্যন্ত পুরুষের নামায আদায়ের জন্য এবং নিচতলায় মহিলাদের জন্য নামায আদায়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু এখন মহিলারা শুধু রমজানেই (নিচ তলায়) তারাবীর নামায আদায় করে এবং জুমার দিন শুধু পুরুষরাই নিচতলায় জুমার নামায আদায় করে। বাকী সময় অন্যান্য দিনে মসজিদের নিচতলায় চেয়ার, টেবিল, ওয়াল আলমারী বসিয়ে সমিতির অফিস হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। সমিতির কেরানীর জন্য নিচতলায় গ্লাস দিয়ে ঘেরাও করে আলাদা একটি অফিস করে দেওয়া হয়েছে। কেরানীর রুম বন্ধ থাকার কারণে জুমার দিন মুসল্লিরা ওই রুমে নামায আদায় করতে পারে না। এখন প্রশ্ন হচ্ছে- ক. মসজিদে নিচতলায় প্রথমে নামায আদায়ের জন্য ব্যবহার করে আসার পর এখন সমিতির অফিস হিসেবে ব্যবহার করা এবং সমিতির কার্যক্রম চালানো বৈধ হচ্ছে কিনা এবং সমিতির ফাইল-পত্র চা নাস্তা প্লেট ও সমিতির শত শত নারী পুরুষ সদস্যদের ছবিযুক্ত ফরমসহ ও অন্যান্য জিনিসপত্র মসজিদের ভিতরে রাখা এবং দুনিয়াবী কথাবর্তা বলাসহ বিভিন্ন হিসাব নিকাশ ইত্যাদি মসজিদের ভিতরে করা বৈধ হচ্ছে কিনা? মসজিদের দানকৃত লাইট, ফ্যান, এসি সমিতির কাজের সময় সদস্যরা ব্যবহার করা বৈধ হচ্ছে কিনা? যদি অবৈধ হয় যারা এভাবে মসজিদের ভিতর দুনিয়াবী কথাবার্তা এ কাজকর্ম করছে এবং ব্যবহারের পক্ষে যুক্তি ও সমর্থন জানাচ্ছে সবাই অপরাধী হবে কিনা? আর যদি অফিস বানানো বৈধ হয়, জুমার দিন যারা অফিসের ভিতর জুমার নামায আদায় করবে তারা জামে মসজিদে জুমার নামায আদায়কারীদের মত ফজিলত পাবে কিনা? খ. মসজিদ নতুন করে বানানোর সময় মসজিদ নির্মাতাদের মনে মনে নিয়ত ছিল যে নিচ তলায় সমিতির অফিস করা হবে। ২য় তলা থেকে উপরের তলাগুলো মসজিদ হবে। কিন্তু জায়গার সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্তৃপক্ষ জামে মসজিদ করার অনুমতি দেওয়ার সময় নিচতলা অফিস করার কোন অনুমতির কথা কাগজপত্রে উল্লেখ করেনি। এ অবস্থায় মসজিদ নির্মাতাদের শুধু মনে মনে নিয়ত ছিল, যে নিচতলা অফিস হবে। এর উপর ভিত্তি করে জামে মসজিদের নিচতলাকে অফিস বানানো যাবে কিনা? গ. আর যদি জায়গার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে জামে মসজিদ করার অনুমতি নেয়ার সময় নিচতলায় সমিতির অফিস করার অনুমতি নিয়ে নিচ তলাকে আবাসিক এলাকার সমিতির অফিস করে, দ্বিতীয় তলা থেকে উপরের তলা গুলোকে জামে মসজিদ করলে, (নিচ তলাকে বাদ দিয়ে) শুধু উপরের তলাগুলা (২য় তলা থেকে পাঁচ তলা পর্যন্ত) জামে মসজিদ হবে কিনা এবং জামে মসজিদের হুকুম আহকাম ও ফজিলত পাওয়া যাবে কিনা? এই পদ্ধতির মধ্যে মসজিদের দানকৃত টাকা দিয়ে উক্ত নিচতলা বা অফিস নির্মাণ করা যাবে কিনা। মসজিদের জন্য দানকৃত টাইলস, লাইট, ফ্যান, এসি বিদ্যুৎ সংযোগসহ মসজিদের জিনিসপত্র অফিসে লাগানো ও ব্যবহার করা যাবে কিনা এবং সমিতির সদস্যরা ও আবাসিক এলাকার দারোয়ানেরা মসজিদের প্রস্রাব, পায়খানা, খাওয়ার পানি ইত্যাদি ব্যবহার করা বৈধ হবে কিনা? আমাদের মূল প্রশ্ন হচ্ছে, শরীয়তের ভাষায় নিচের তলা কি মসজিদ না অফিস?

{{{ গোলাম ফারুক   ১৫ নং বাগমরিয়ম ওয়ার্ড, চট্টগ্রাম।  }}}}          উত্তর: মহান আল্লাহ্ তা’আলা ক্বোরআনুল কারীমে এরশাদ করেন- وان المساجد لله অর্থাৎ এবং নিশ্চয় মসজিদগুলো আল্লাহরই জন্য। [সূরা জিন: আয়াত ১৮, পারা ২৯]...

ctg uttar jela gausia comitee pic 0

জেলা গাউসিয়া কমিটির এয়া গাউসুল আযম (রা.) সুন্নি কনফারেন্সে বক্তারা- অলি আল্লাহদের ত্যাগে এদেশে ইসলাম এসেছে, আর এখন জঙ্গীবাদীরা একে কলংকিত করছে

চট্টগ্রাম উত্তজেলা গাউছিয়া কমিটি আয়োজিত হাটহাজারী কলেজ ময়দানে অনুষ্ঠিত লাখো জনতার সুন্নি কনফারেন্সে বক্তাগণ বলেন, এক সময় পীর-আউলিয়াদের ত্যাগের বিনিময়ে আমাদের উপমহাদেশে ইসলাম এসেছিল, আর আজ সেই ইসলামকে জঙ্গীদের দিয়ে ধ্বংসের চক্রান্ত চলছে। ইহুদীবাদের...

17203136_1819545168370342_78589871464474953_n 0

২. মৃত ব্যক্তির কবরে ফুল দেওয়া এবং মৃত ব্যক্তির স্মরণে ঈসালে সাওয়াব ও স্মরণ সভা করা, ফাতেহা করা ক্বোরআন-হাদিসের আলোকে কতটুকু জায়েয বা বৈধ?

{{{ মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম চৌধুরী মেহের আটি, পটিয়া, চট্টগ্রাম।}}} [জমাদিউস্ সানি সংখ্যা] উত্তর:২. বিশ্বজগতের সকল বস্তু স্ব-স্ব অবস্থায় মহান আল্লাহর পবিত্রতা ও তাসবীহ বর্ণনা করছে, কিন্তু সাধারণ মানুষ তাদের তাসবীহ পাঠ বুঝতে পারে না।...

17203136_1819545168370342_78589871464474953_n 0

 প্রশ্ন: ১. মুসলমানের কবর পাকা করা এবং কবরের উপর গিলাপ বা সুন্দর কাপড় পরানো ক্বোরআন-হাদিসের আলোকে কতটুকু জায়েয বা বৈধ? জনৈক ব্যক্তি (সদ্য হজ্ব পালনকারী) বলেছেন মহানবী সাল্লাল্লাহু তা‘আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম-এর রওজা শরীফ পাকা করা নয়!

{{{ মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম চৌধুরী মেহের আটি, পটিয়া, চট্টগ্রাম।}}}} [জমাদিউস্ সানি সংখ্যা]  উত্তর: আউলিয়ায়ে কেরাম, পীর-মশায়েখ, হক্কানী-রাব্বানী ওলামায়ে এজাম ও মুসলিম বুজর্গ ব্যক্তিদের কবর সংরক্ষণ, যিয়ারতকারীদের যিয়ারতের সুবিধার্থে ও সর্বসাধারণের অন্তরে তাঁদের প্রতি ভক্তি-শ্রদ্ধা,...

17203136_1819545168370342_78589871464474953_n 0

বিবাহ: সুন্নাত পদ্ধতির অনুসরণ প্রয়োজন- অধ্যাপক মুহাম্মদ মাসুম চৌধুরী

{{মাসিক তরজুমান (চলতি মাস) জমাদিউস্ সানি সংখ্যা }} বিবাহ ইসলাম ধর্মে একটি অত্যন্ত পবিত্র বিষয়। এই বিয়ে প্রথার মাধ্যমে পরিবার নামক একটি সংগঠনের সৃষ্টি হয়। সে সংগঠনটি সৃষ্টির শুরুতে যদি কুসংস্কৃতি অপসংস্কৃতি মুক্ত না থাকে...

17203136_1819545168370342_78589871464474953_n 0

হযরত আবু বকর সিদ্দিক রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু ও কল্যাণময় রাষ্ট্র – জসিম উদ্দীন মাহমুদ

[মাসিক তরজুমান ১৪৩৮ হিজরি জমাদিউস্ সানি সংখ্যায় প্রকাশিত] হযরত আবু বকর! আড়ম্বরহীন সহজ সরল একটি নাম। যে নামটি উচ্চারণ করার সঙ্গে সঙ্গে মনে জাগে একটি সৌম্য, স্নিগ্ধ, পবিত্র পুরুষের মুখ। একমাত্র সন্ধ্যাতারার সঙ্গেই সে...

Jamadius Sani 0

মানবজীবনে তাকওয়ার প্রভাব – কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক

মানুষের জীবনে সাফল্য অর্জনে তাকওয়ার প্রভাব অনবদ্য ও অপরিমেয়। বিশেষ করে সকল মুসলিমের ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে তাকওয়ার সুদূর প্রসারী প্রভাব অনস্বীকার্য। সামাজিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা আনয়নে তাকওয়া তথা সুস্থ মানসিকতা, মননশীলতা ও আল্লাহ্্...

Jamadius Sani 0

বাদশা আওরঙ্গজেবের কর্ম, জীবনের শেষপ্রান্তে অছিয়ত – আহমদুল ইসলাম চৌধুরী

মোগল বংশের বাদশা আওরঙ্গজেব বিখ্যাত নাম। তিনি ছিলেন ধার্মিক। দীর্ঘ প্রায় এক নাগাড়ে ৫০ বছর ভারত শাসন করেছিলেন। তার ইন্তেকালের সাথে সাথে মোগলদের পতনের সূচনা হয়। মোগল বংশে তিনিই বিশাল ভারতবর্ষে তার অগ্রজদের থেকে...