জুমার কোন খোতবা শ্রবণ করা ওয়াজিব? প্রথম না কি দ্বিতীয়টা?

0

প্রশ্ন করেছেন মুহাম্মদ শওকত আলী –
সুপার, মদিনাতুল আউলিয়া মাদ্রাসা, চট্টগ্রাম।

প্রশ্ন: জুমার কোন খোতবা শ্রবণ করা ওয়াজিব? প্রথমটা না কি দ্বিতীয়টা? খোতবাকালীন মুসল্লীদের করণীয় কি? এই দুটি প্রশ্ন বিস্তারিত জানানোর বিনীত নিবেদন করছি।

উত্তর: নামাযে জুমু‘আর জন্য মতলক বা সাধারণভাবে খোতবা প্রদান করা শর্ত বা ওয়াজিব। তবে দুই খোতবা পাঠ করা সুন্নাতে মুয়াক্কাদা এবং উপস্থিত মুসল্লীদের জন্য উভয় খোতবা নীরবে শোনা ওয়াজিব। তাই উভয় খোতবার সময় উপস্থিত সকল মুসল্লীদের জন্য সুন্নাত-নফল-ওয়াজিব ইত্যাদি নামায আদায় করা এমনকি হযরত ইমাম আযম আবু হানীফা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুর মতে মৌখিক শব্দ করে কোন দু’আ-কালাম, এমনকি ক্বোরআন তেলাওয়াত করাও নিষিদ্ধ। এ সময় ভিন্ন কোন কাজে লিপ্ত থাকা যাবে না। আপাদ-মস্তক ও মনোযোগ খোতবার দিকেই নিবিষ্ট থাকা জরুরি। শুধু সাহেবে তারতীব বা যে সব মুসল্লি সে দিনের ফজরের নামায পড়ে নাই অথবা পাঁচ ওয়াক্তের কমে নামায কাযা হয়েছে সে সব মুসল্লি উক্ত কাযা নামাযগুলো আদায় করবে। হাদীসে পাকে রয়েছে-اذا صعد الامام على الممبر يَومَ الجمعةِ فَلَاصَلَاةَ ولَا كلام- (الحديث)
অর্থাৎ জুম‘আর দিন ইমাম/খতিব সাহেব যখন খোতবা দিতে মিম্বরে আরোহন করবেন তখন না নামায পড়বে এবং কোন কথা-বার্তা বলবে না। [হাদীস শরীফ] যদিও খতিবের খোতবার আওয়াজ মুসল্লীর কানে না পৌঁছে তবুও চুপ থাকা এবং খুতবার দিকে মুসল্লিদের মনোনিবেশ করা জরুরি। [ফাতহুল কাদীর, রদ্দুল মুহতার, মুমিন কি নামায, জুমার বিবরণ হেদায়ার আরবী টীকা: পৃষ্ঠা ১৫৪ ইত্যাদি]