জামাতের সময় মুসল্লিগণ কখন দাঁড়াবেন?

0

মুহাম্মদ ওমর ফরুক-লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম।

 প্রশ্ন: আমাদের এলাকার মসজিদে নামাযের জামাত শুরু করার পূর্বে ইমাম এবং মুসল্লি দাড়িয়ে যেতে দেখা যায়। কিন্তু আমি শুনেছি এটি সুন্নাত নয়। তাই ক্বোরআন ও হাদীসের আলোকে জানিয়ে উপকৃত করবেন।

উত্তর: আজকাল কিছু কিছু মসজিদে পঞ্জেগানা ও জুমার জামাতের ইকামত শুরু করার পূর্বে অথবা শুরু করার সাথে সাথে ইমাম ও মুকতাদীকে দাড়িয়ে যেতে দেখা যায়। যা হাদীস শরীফ ও সুন্নাতের পরিপন্থি। এমনকি শরীয়তের মাসআলা হল- ইক্বামত প্রদানকালে কেউ মসজিদে প্রবেশ করলে সেও বসে যাবে। অনুরূপ যে সকল মুসল্লি আগ থেকে মসজিদে অবস্থান করছেন তারাও বসে থাকবে। ইমামের জন্যও একই হুকুম। আর যখন মুক্বাব্বির/মুয়াজ্জিন ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাত’ বা ‘হাইয়্যা আলাল ফালাহ্’ বলবেন তখন ইমাম ও মুসল্লিগণ দাঁড়াবেন।
[ফতোয়ায়ে আলমগীরি] এটাই সুন্নাত। প্রসঙ্গে হাদীসে পাকে উল্লেখ রয়েছে-
عن اُمّ حبيبة أنَّ رسول الله صلى عليه وسلم كان فى بيتها فَسَمِعَ المؤذِّنَ فقال كما يقول: فلمَّا قال حتَّى عَلَى الصَّلَاةِ نَهَضَ رَسُولُ الله صلى الله عليه وسلم الى الصّلاة-
অর্থাৎ- হযরত উম্মে হাবিবা রাদ্বিয়াল্লাহু তা’আলা আনহা হতে বর্ণিত, নিশ্চয় রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম ইকামতের আওয়াজ তাঁর হুজরা শরীফে থাকতেই শুনতে পেতেন। অতঃপর মুয়াজ্জিন যখন ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাহ্’ বলতেন (তখন হুজরা শরীফ থেকে বের হয়ে) তিনি নামাযের জন্য (মুসল্লায়) দাঁড়িয়ে যেতেন।
[আল্ মুসান্নাফ- ইমাম আবদুর রায্যাক, ১ম খন্ড, পৃষ্ঠা ৪৮১, হাদীস নম্বর ১৮৫১] হানাফী মাযহাবের অন্যতম মুহাদ্দিস আল্লামা ইমাম মোল্লা আলী ক্বারী হানাফী রাহমাতুল্লাহি আলায়হি ‘মিরকাত শরহে মিশকাত’ কিতাবে উল্লেখ করেছেন-
ولَعَلَّهُ عليه السلام كان يخرج من الحجرة بَعدَ شروع المؤذّن فى الاقامة ويَدْخلُ فى محراب المسجد عند قوله حتى عَلَى الصلاة ولذا قال ائِمّتُنَا: ويقوم الامام عند حتى على الصلاة-
অর্থাৎ- সম্ভবত তিনি (প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম) মুয়াজ্জিন ইক্বামত শুরু করার পর হুজরা শরীফ থেকে বের হতেন এবং মুয়াজ্জিন ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাহ্’ বলার সময় মসজিদে নববীর মেহরাবে (ইমামতির স্থানে) প্রবেশ করতেন। এজন্য আমাদের হানাফী মাযহাবের ইমামগণ বলেছেন ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাহ্’ বলার সময় ইমাম ও মুসল্লিগণ নামাযের জন্য দাঁড়াবেন।
[মিরকাত শরহে মিশকাত: ইমাম মোল্লা আলী ক্বারী রাহ., ২য় খন্ড, পৃষ্ঠা ৫৫২] পাক-ভারত উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মুহাদ্দিস আল্লামা শেখ আবদুল হক মুহাদ্দিস দেহলভী রাহমাতুল্লাহি আলায়হি তাঁর ‘আশিয়াতুল লুমআত শরহে মিশকাত’ গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন-
قال الفقهاء يقومون عند هذا اى قوله حتّى عَلَى الصّلاة-
অর্থাৎ- ফুকাহায়ে কেরাম বা ইসলামী আইন বিশারদগণ বলেছেন, ‘‘মুয়াজ্জিন যখন ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাহ্’ বলবেন তখনই ইমাম ও মুসল্লিগণ দাঁড়িয়ে যাবেন।’’ [৩য় খন্ড, পৃৃষ্ঠা ৩৫] মুয়াজ্জিন যখন ইক্বামতে ‘হাইয়্যা আলাস্ সালাহ’ শেষ করবেন ইমাম ও মুসল্লিগণ তখন দাঁড়ানোই শরীয়ত সম্মত ও সুন্নাতে রাসূল সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম-এর যথাযথ অনুসরণ। ইসলামী ফিক্হের অনেক নির্ভরযোগ্য কিতাবে ‘হাইয়্যা আলাস্-সালাহ্’ এর স্থলে ‘হাইয়্যা আলাল ফালাহ্’-এর সময় ইমাম ও মুসল্লিগণ দাঁড়াবেন এমর্মে ফতোয়া/ফায়সালা দেয়া হয়েছে সুতরাং সবাইকে সুন্নাতের উপর আমল করার চেষ্টা করতে হবে।

শেয়ার
  • 372
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    372
    Shares