জশনে জুলুসে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আনজুমান ট্রাস্টের নির্দেশনা

0

৯ ও ১২ রবিউল আউয়াল আওলাদে রসুল  আল্লামা তাহের শাহ‘র
সদারতে বিশ্বের বৃহত্তম জুলুস: ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

সারা বিশ্বের জন্য আল্লাহর রহমত হিসেবে আবির্ভূত হুজুর রাসুলে পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লার শুবাগমন দিবসে আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট’র উদ্যোগে বিশ্বের বৃহত্তম জশনে জুলুস অনুষ্ঠিত হবে। আওলাদে রসুল আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তাহের শাহ‘র সদারতে ৯ রবিউল আউয়াল, ১৮ নভেম্বর’১৮ রবিবার, ঢাকায় ও ১২ রবিউল আউয়াল, ২১ নভেম্বর’১৮ বুধবার, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বের বৃহত্তম জশনে জুলুস।

জশনে জুলুস মিডিয়া উপকমিটির এক প্রস্তুতি সভা গত ১০ নভেম্বর মিডিয়া কমিটির এক সভা আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহসিন’র সভাপতিত্বে পিএইচপি হাউজে অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মিডিয়া কমিটির আহ্বায়ক পিএইচপি ফ্যামিলির পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ আমির হোসেন সোহেল।

বিশেষ অতিথি ছিলেন আনজুমান ট্রাস্ট’র এডিশনাল সেক্রেটারী আলহাজ্ব মোহাম্মদ সামশুদ্দিন, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি আলহাজ¦ মুহাম্মদ সিরাজুল হক, এসিস্টেন্ট জেনারেল সেক্রেটারি আলহাজ এস.এম. গিয়াস উদ্দিন সাকের, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারী অধ্যাপক আলহাজ্ব কাজী শামসুর রহমান, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার গভনিং বডির চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’র চেয়ারম্যান আলহাজ¦ পেয়ার মুহাম্মদ, দক্ষিণ জেলা সভাপতি আলহাজ¦ মুহাম্মদ কমরুদ্দিন সবুর।

সভায় বিগত ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত পবিত্র জশনে জুলুসের সংবাদ ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া গুরুত্বের সাথে প্রচার করায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। আসন্ন জুলুস আরো ব্যাপকভাবে আয়োজনে নানা পরামর্শ দিয়ে প্রস্তুতি কমিটির সদস্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন এড. মোছাহেব উদ্দিন বখতেয়ার, আলহাজ্ব ছাবের আহমেদ, আলহাজ্ব সাদেক হোসেন পাপ্পু, আবু নাছের মোহাম্মদ তৈয়ব আলী, তৈয়্যব মুহাম্মদ তাহসিন, হাফেজ মারুফুর রহমান, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, মাহমুদুল হক, আশিক রহমান, মুহাম্মদ আজাদ, আবুল মনসুর আরমান, মুহাম্মদ ইলিয়াছ, মুহাম্মদ আরিফ, মোহাম্মদ হোসাইন খোকন প্রমূখ।

সভাপতির বক্তব্যে আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহসিন বলেন মোরশিদে বরহক আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়্যব শাহ রহমাতুল্লাহি আলায়হি ১৯৭৪ সালে পবিত্র জশনে জুলুস প্রবর্তন করেন। বর্তমান এ জুলুস সর্বত্র ব্যাপকভাবে পালিত হচ্ছে। এ জুলুসের মাধ্যমে বিশ্ব মুসলিম ঐক্য, সংহতি ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধন দৃঢ় হয়। রাসুলের আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে নব উদ্যমে বিশ্ব মুসলিম জাগ্রত করনে নিয়ামকের ভূমিকা পালন করে এ জুলুস। গাউসিয়া কমিটির সর্বস্তরের ভাইদেরকে জুলুস সফল কল্পে কাজ করার তিনি আহ্বান জানান এবং প্রশাসনসহ সকল মহলের সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •