প্রশ্নোত্তর: আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পরিচিতি

0

মাজেদুল ইসলাম, সিলেট
প্রশ্নঃ কোরআন-হাদীসের আলোকে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পরিচিতি এবং বাতিলের কথা আলোচনা করলে খুশি হব।
উত্তরঃ ইসলাম কালজয়ী ও শ্রেষ্ঠ দর্শন। আল্লাহর নিকট একমাত্র মনোনীত ধর্ম হল ইসলাম। ইয়াহুদী-নাসারা, কাফির-মুশরিকরা ইসলামের আদি শত্রু। এরা যুগে যুগে ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল এবং অনেক ক্ষেত্রে বাহ্যিকদৃষ্টিকোণে সফলও হয়েছিল। ফলে মুসলমানদের মধ্য হতে কিছু সংখ্যক অর্থলোভী, দূর্বল ঈমানদারকে তাদের অনুগত বানিয়ে মুসলমানদের সুদৃঢ় ঐক্যে ফাটল ধরাবার অপচেষ্টায় মেতে ওঠে। তাই প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অনেক আগেই উম্মতকে হুশিয়ার করে দিয়েছেন- ‘বনী ইসরাঈল বাহাত্তর দলে বিভক্ত ছিল, আর আমার উম্মত তিয়াত্তর দলে বিভক্ত হবে। সবই জাহান্নামে যাবে একটি দল ছাড়া। নবীজির খিদমতে আরজ করা হলো ইয়া রসূলাল্লাহ্‌। সেই নাজাত প্রাপ্ত দল কোনটি? উত্তরে নবীজি ইরশাদ করেন- যে দলে আমি এবং আমার সাহাবাগণ রয়েছে। -[আবূ দাঊদ শরীফ ও মিশকাত শরীফ]
হযরত আবদুল্লাহ্‌ ইবনে মাসঊদ রদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন- রসূলে করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের সামনে একটি রেখা অঙ্কণ করলেন। অত:পর বললেন এটা আল্লাহর রাস্তা। অত:পর ঐ সরল রেখার ডানে-বামে আরো অনেক রেখা অঙ্কণ করলেন এবং বললেন এ হলো কতগুলো রাস্তা, এর প্রত্যেকটিতে একটি করে শয়তান রয়েছে। সে ঐ ভ্রান্তপথে আহবান করছে। অত:পর এরশাদ করলেন-ان هذا صراطى متقيما فاتبعوه   অর্থাৎ এটা (প্রথম রেখাই) আমার সহজ-সরল পথ। তোমরা এ পথের অনুসরণ কর।
[মুসনাদে আহমদ মুসনাদুল মুকসিরিন মিনাস সাবাহ, মুসনাদি আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ, হাদিস নং-৩৯২৮, নাসায়ী, সুনানু কুবরা, ৬ষ্ঠ খণ্ড, পৃ.৩৪৩, হাদিস নং-১১১৭৪, সুনানে দারেমী, বাবু ফি কাবাহিয়্যাতি আখযির রায, ১ম খণ্ড, পৃ. নং-২৩০, হাদিস নং-২৯৮ ইত্যাদি]
নবীজির নির্দেশিত সেই পথই আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাত। আর আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পরিপন্থী অবশিষ্ট মতবাদগুলো হলো বাতিল ফিরকা বা গোমরাহ দল। উল্লিখিত হাদীস শরীফে নবীজি যে বাহাত্তরটি জাহান্নামী দলের কথা উল্লেখ করেছেন মূলত: সেগুলোই হলো বাতিল ফিরকা। নবীজির সেই ভবিষ্যত বাণী পরবর্তীতে বাস্তবে পরিণত হয়েছিল।
মুহাদ্দিসীনে কেরাম ঐ হাদীসের ব্যাখ্যায় ইসলামের নামে সৃষ্ট বাতিল ফিরকাগুলোর তালিকা প্রণয়ন করেছেন।
প্রথমত: তাঁরা ৭২টি বাতিল ফিরকার মূল ছয়টি উল্লেখ করেছেন। তা হলো ১.খারেজী, ২. ক্বদরিয়া, ৩.জাহমিয়া, ৪.মুরজিয়া,  ৫. রাফেজী, ৬. জবরিয়া। আবার এগুলোর প্রত্যেকটি বার শাখায় বিভক্ত।
আমাদের দেশে প্রচলিত বাতিল মতবাদ, ওহাবী, মওদূদী, তবলীগী, কাদিয়ানী, শিয়া  ও খারেজী ইত্যাদি উপরোক্ত ছয়টি বাতিল ফিরকার কোন না কোন দলের অনুসারী ও তাদের আকীদায় বিশ্বাসী বলে এরা আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পরিপন্থী।
[গুনিয়াতুত তালেবীন, কৃত: পীরানে পীর শায়খ আবদুল কাদের জিলানী রহমাতুল্লাহি আলাইহি, তাফসীরাতে আহমদিয়া, কৃত: শায়খ আহমাদ জীওয়ান, বাগে খলীল, ১ম খন্ড (আমার রচিত), এবং মাওলানা কাজী মঈনুদ্দীন আশরাফী রচিত ‘কোরআন-সুন্নাহর আলোকে ইসলামের মূলধারা ও বাতিল ফিরকা’ ইত্যাদি।]
[সূত্র. যুগ-জিজ্ঞাসা, পৃ. ২-৩]
শেয়ার
  • 37
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    37
    Shares